HomeUncategorizedনদী পারপার হতে গিয়ে নিখোঁজ হওয়ার দুদিন পর মিললো বৃদ্ধার লাশ

নদী পারপার হতে গিয়ে নিখোঁজ হওয়ার দুদিন পর মিললো বৃদ্ধার লাশ

print news

গোলাম রববানী, হিলি প্রতিনিধিঃ

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে আছিয়া বেগম (৬০) নামে এক বৃদ্ধার মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস। গত সোমবার সকালে নদী পার হতে গিয়ে নিখোঁজ হয়েছিলেন ওই বৃদ্ধা বলে নিশ্চিত করেছেন তার পরিবার।

বুধবার (১৮ অক্টোবর) সকাল ঘোড়াঘাট-পলাশবাড়ী সড়কের ত্রিমোহনী ব্রীজ এলাকায় নদীর কিনারা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এরআগে মরদেহ ভাসতে দেখে  পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয় স্থানীয়রা।

নিহত আছিয়া বেগম (৬০) গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার কিশোরগাড়ী ইউনিয়নের পশ্চিম মির্জাপুর গ্রামের মৃত খোররাম উদ্দিনের স্ত্রী। দীর্ঘ কয়েকবছর আগে স্বামীর সাথে বিচ্ছেদ হওয়ায় ভাইয়ের বাড়িতে থাকতেন তিনি।

নিহতের ভাতিজা সিদ্দিকুর রহমান জানান, গত সোমবার সকালে বাড়ির পাশ দিয়ে যাওয়া করতোয়া নদী কোমর সমান পানিতে হেঁটে পার হয়ে পাশের টেংরা গ্রামে গিয়েছিলেন আছিয়া। ওই গ্রামের এক ব্যক্তির কাছে টাকা পেতেন তিনি। সেই টাকা চাইতেই গিয়েছিলেন বৃদ্ধা। তবে ফেরার পথে নদী পার হতে গিয়ে নিখোঁজ হয়ে যান আছিয়া বেগম। এরপর ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলের সহযোগীতায় নদীর বিশাল অংশ জুড়ে সোমবার ও মঙ্গলবার উদ্ধার অভিযান চালানো হয়। তবে খুঁজে পাওয়া যায়নি তাকে।

তিনি আরো জানান, নদীর কিছু জায়গায় পানির পরিমান বেশি। সেসব জায়গায় সাঁতরে পার হতে হয়। বয়স্ক মানুষ হওয়ায় এবং শরীরে শাড়ি পরিহিত থাকায় সাঁতার দিতে না পেরে পানিতে ডুবে যান তিনি, এমন ধারণা পরিবারের।

ঘোড়াঘাট ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার নিরঞ্জন সরকার বলেন, স্থানীয় মাধ্যমে খবর পাই যে করতোয়া নদীতে একটি মরদেহ ভাসছে। তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে গিয়ে আমরা মরদেহ উদ্ধার করি। খবর পেয়ে নিহতের পরিবারের সদস্যরাও ঘটনাস্থলে এসেছেন।

এদিকে ঘোড়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, নদীতে নিখোঁজের পর অনেক খোঁজাখুঁজি করেও কোন সন্ধান না পেয়ে নিহতের পরিবার পলাশবাড়ী থানায় একটি সাধারন ডায়েরি (জিডি) করেছিলেন। ওই থানার কর্মকর্তার সাথে আমাদের কথা হয়েছে। যেহেতু আমাদের থানা এলাকায় মরদেহটি ভেসে উঠেছে। সেহেতু আমরা জিডিমূলে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করবো।

এই বিভাগের আরো খবর

সর্বশেষ সংবাদ

দশ জনপ্রিয় সংবাদ