Homeসারাদেশদিনাজপুরহাকিমপুরে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষকে অবগত না করে মাধ্যমিক বিদ্যালয় ছুটি ঘোষণা দিয়েছে প্রধান...

হাকিমপুরে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষকে অবগত না করে মাধ্যমিক বিদ্যালয় ছুটি ঘোষণা দিয়েছে প্রধান শিক্ষক

print news

দিনাজপুরের হাকিমপুর হিলি উপজেলার আলিহাট ইউনিয়নের কোকতাড়া দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রতন কুমার সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা করে ও সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষকে না জানিয়েছে সংরক্ষিত ছুটিসহ রমজান উপলক্ষে তিন দিন পূর্বে গতকাল বৃহস্পতিবার এর পর থেকে বিদ্যালয় ছুটি ঘোষণা দিয়েছেন।

রবিবার (২৪ মার্চ) সকাল ১১ঃ১৫ মিনিটে সরেজমিনে বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, বিদ্যালয়টির প্রধান গেটে তালা ঝুলছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায় সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা করে ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসকে না জানিয়ে রমজান উপলক্ষে গত বৃহস্পতিবার থেকে সংরক্ষিত ছুটিসহ রমজান উপলক্ষে বিদ্যালয়টি ছুটি ঘোষণা করেছেন প্রধান শিক্ষক রতন কুমার সরকার। বিদ্যালয়ের সভাপতি ও দাতা সদস্যদের অভিযোগ প্রধান শিক্ষক তার নিজ ইচ্ছা মতো সব কিছু করেন আমরা কিছুই জানি না। অন্য দিকে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস।

হাকিমপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের তথা মতে, চলতি বছরে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক এবারে পবিত্র রমজান মাসে ১৫ রমজান (২৫ মার্চ) পর্যন্ত বিদ্যালয়ের শ্রেণী কক্ষে পাঠ দানের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু সেই নির্দেশনা উপেক্ষা করে ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসকে কোন কিছু অবগত না করে প্রধান শিক্ষক নিজের ইচ্ছা মতো সংরক্ষিত ছুটিসহ রমজান উপলক্ষে বিদ্যালয় ছুটি ঘোষণা দিয়েছেন।

কোকতাড়া দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ক্ষুদে শিক্ষার্থী মনি আক্তার এর বাবা মিজানুর রহমান বলেন, গত বৃহস্পতিবার আমাদের কোকতাড়া হাইস্কুলের কমিটির সভাপতির ভোট হয়েছে এবং নতুন সভাপতি হয়েছে। আজকে আমার মেয়ে স্কুলে গিয়ে শুনে স্কুল না কি বন্ধ দিয়েছে। পরে খোঁজ নিয়ে জানত পারি স্কুল না কি সংরক্ষিত ছুটিসহ রমজান উপলক্ষে ছুটি দিয়েছে।

বিদ্যালয়ের দাতা সদস্য ও অভিভাবক মোঃ মনিরুজ্জামান (মানিক) বলেন, প্রধান শিক্ষক রতন কুমার তার ইচ্ছা মতো সব কিছু করেন। গত বৃহস্পতিবার নতুন কমিটির সভাপতি নির্বাচন হয়েছে। পরে শুনলাম সংরক্ষিত ছুটিসহ স্কুল রমজানের ছুটি দিয়েছে। আমি এ বিষয়ে কিছু জানি না।
তিনি আরও বলেন, বিদ্যালয়ের নতুন ম্যানেজিং কমিটি গঠনে প্রধান শিক্ষক বিভিন্ন অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতি করায় তার বিরুদ্ধে আজ ২৪ মার্চ জেলা শিক্ষা অফিসার এর নিকট লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।

সংরক্ষিত ছুটিসহ বিদ্যালয় ছুটির বিষয়ে জানতে চাইলে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রতন কুমার সরকার মুঠো ফোনে জানান, সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক আগামী ২৫ মার্চ পর্যন্ত শ্রেনী কক্ষে পাঠদান কার্যক্রম চালু রাখতে হবে। তবে যেহেতু ২৫ মার্চ বিদ্যালয় ঐচ্ছিক ছুটি রয়েছে। তাই আমি রবিবার ২৪ মার্চ সংরক্ষিত ছুটি দিয়ে রমজান উপলক্ষে বিদ্যালয় ছুটি দিয়েছি।
তিনি আরও বলেন, এবিষয়ে আমি বিদ্যালয়ের বর্তমান সভাপতি ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসকে অবগত করেছি।

বিদ্যালয়ের সভাপতি সুমন মন্ডল বলেন, বিদ্যালয়টির আমি বর্তমান সভাপতি হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করে আসছি। গত বৃহস্পতিবার নতুন কমিটির সভাপতি নির্বাচন হয়েছে সেখানে নতুন সভাপতি হয়েছে। বিদ্যালয় ছুটির বিষয়ে প্রধান শিক্ষক আমাকে মৌখিক ভাবে ও বলেনি এবং এবিষয়ে আমি কিছুই জানি না।
তিনি আরও বলেন, প্রধান শিক্ষক ইতিপূর্বে ও বিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিষয়ে সিদ্ধান্ত একাই নিয়েছেন এবং তার বিষয়ে আরও অভিযোগ ও কথা আছে সাক্ষাৎ এ বলবো।

এবিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আহমদ আহসান হাবিব বলেন, সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক আগামী ২৫ মার্চ পর্যন্ত শ্রেণী কক্ষে পাঠদান কার্যক্রম চালু রাখার কথা বলা হয়েছে। কিন্তু কেন গত বৃহস্পতিবার এর পরে সংরক্ষিত ছুটিসহ বিদ্যালয় ছুটি দিয়েছে বিষয়টি আমি অবশ্যই খতিয়ে দেখবো এবং উর্ধতন কতৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।
সংরক্ষিত ছুটির বিষয়ে তিনি বলেন, নিয়ম অনুযায়ী প্রতিষ্ঠান প্রধান সংরক্ষিত ছুটি দিলে অবশ্যই উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসকে জানাতে হবে। তবে এবিষয়ে প্রতিষ্ঠান প্রধান আমাকে ব্যক্তিগত বা অফিসে অবগত করেন নাই। আমি প্রথম আপনার মারুফত জানতে পারলাম এবং বিষয়টি খতিয়ে দেখবো।

এই বিভাগের আরো খবর

সর্বশেষ সংবাদ

দশ জনপ্রিয় সংবাদ