Homeসারাদেশদিনাজপুরহিলিতে সপ্তাহের ব্যবধানে সব মুরগির দাম বেড়েছে

হিলিতে সপ্তাহের ব্যবধানে সব মুরগির দাম বেড়েছে

print news

দিনাজপুরের হাকিমপুর হিলিতে পবিত্র মাহে রমজানের শেষে এক সপ্তাহের ব্যবধানে ব্রয়লার মুরগির দাম কেজিতে বেড়েছে ২০ টাকা। পাকিস্তানি ও দেশি মুরগির দামও বেড়েছে। ২৮০ টাকা কেজি দরের পাকিস্তানি মুরগি বিক্রি হচ্ছে ৩২০ টাকা কেজি দরে। আর দেশি মুরগি ৩৮০ টাকার স্থলে বিক্রি হচ্ছে ৪২০ টাকায়।

শনিবার (০৬ এপ্রিল) সকালে হিলি মুরগি বাজারে গিয়ে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।গত এক সপ্তাহ আগে প্রতিকেজি ব্রয়লার মুরগি ১৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। আজ শনিবার সেই মুরগি বিক্রি হচ্ছে ২০০ টাকা কেজি দরে। এছাড়াও বেড়েছে দেশিসহ পাকিস্তানি মুরগির দামও।
ক্রেতারদের অভিযোগ রমজান মাসের প্রথমদিকে ব্রয়লার মুরগির দাম বাড়লো না। কিন্তু শেষেরদিকে এসে প্রতি কেজি ২০ টাকা বেড়েছে। ঈদের সময় মনে হচ্ছে আরও দাম বাড়তে পারে।
আর বিক্রেতারা বলছেন, বর্তমানে খামারিরা বাজারে কম পরিমাণ মুরগি আনছেন। তারা হয়তো ঈদের সময় লাভের আশায় বড় সাইজের মুরগি তৈরি করছেন। তাই বাজারে ব্রয়লার মুরগির সরবরাহ আগের চেয়ে কমেছে। ফলে দামও বেড়েছে।
হিলি বাজারে ব্রয়লার মুরগি কিনতে আসা গৃহবধূ আয়েশ বেগম বলেন, আমি গত সপ্তাহে প্রতিকেজি ব্রয়লার কিনেছি ১৮০ টাকা কেজি দরে। কিন্তু আজ সেই ব্রয়লার ২০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। কী আর করার বাধ্য হয়ে কেজিতে ২০ টাকা বেশি দিয়েই কিনতে হলো।
বাজারে মুরগি কিনতে আসা ক্রেতা রক্তিম বলেন, আমি প্রায় সপ্তাহে মুরগি কেনি। কিন্তু দিনদিন মুরগির দাম বৃদ্ধি পাচ্ছে। মাহে রমজানের শুরুতে ব্রয়লার মুরগির দাম ছিলো ১৬০ টাকা কেজি। মধ্য রোজা পর্যন্ত ১৮০ টাকা কেজি কিনেছি। আজ ২৬ রোজায় ২০০ কেজি দরে কিনতে হচ্ছে।
রক্তিম আরও বলেন, ঈদের সময় মনে হচ্ছে দাম আরও বাড়তে পারে। গত বছর ঈদুল ফিতরের সময়ও প্রতিকেজি ব্রয়লার ২৪০ থেকে ২৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। এবারও তাই হতে পারে।

বাজারে ব্রয়লার মুরগি বিক্রেতা মোঃ ফারুক হোসেন বলেন, আমরা তো রমজানের শুরুর দিকে ১৬০ থেকে ১৭০ টাকা কেজি দরে ব্রয়লার মুরগি বিক্রি করেছি। তথন সরবরাহ স্বাভাবিক ছিল। এখন ধীরে ধীরে সরবরাহ কমে আসছে। খামারিরা হয়তো ঈদকে সামনে রেখে মুরগির সাইজ বড় করার জন্য অল্প পরিমাণে মুরগি বাজারে আনছেন। তাই দাম একটু বেড়েছে। গত সপ্তাহে ১৮০ টাকা কেজি বিক্রি করেছি। আর আজ বিক্রি করছি ২০০ টাকা কেজি দরে।
তিনি আরও বলেন, শুধু ব্রয়লার মুরগি না। পাকিস্তানি ও দেশি মুরগির দামও বেড়েছে। ২৮০ টাকা কেজি দরের পাকিস্তানি মুরগি বিক্রি হচ্ছে ৩২০ টাকা কেজি দরে। আর দেশি মুরগি ৩৮০ টাকার স্থলে বিক্রি হচ্ছে ৪২০ টাকায়।

এই বিভাগের আরো খবর

সর্বশেষ সংবাদ

দশ জনপ্রিয় সংবাদ