Homeসারাদেশদিনাজপুরহিলি ও নবাবগঞ্জে পৃথক দুটি সড়ক দুর্ঘটনায় দুই জন নিহত

হিলি ও নবাবগঞ্জে পৃথক দুটি সড়ক দুর্ঘটনায় দুই জন নিহত

print news

দিনাজপুরের হিলিতে ট্রাকের পিছনের চাকায় মাথা ঢুকে দিয়ে অজ্ঞাত (৫০) নামে একজন আত্বহত্যা করেছে ও পার্শ্ববর্তী নবাবগঞ্জে ড্রাম ট্রাকের চাকার নিচে পড়ে জয় চন্দ্র (১৯) নামে এক মোটরসাইকেল চালক নিহত হয়েছেন। এঘটনায় গুরুত্বর আহত হয়েছেন এক মোটরসাইকেল আরোহী।

শুক্রবার (০৩ মে) দুপুর ১টার দিকে হিলি-বিরামপুর সড়কের ধরন্দা (ফকিরপাড়া) নামকস্থানে অজ্ঞাত রাস্তার পাশে বসে ছিলেন হঠাৎ ট্রাকের পিছনের চাকায় ঝাপ দিয়ে আত্মহত্যা করে। এদিকে দিনাজপুর-ঘোড়াঘাট মহাসড়কের ভাদুরিয়া বাজারের তেল পাম্পের পাশে ড্রাম ট্রাকের চাকার নিচে একজন মোটরসাইকেল চালক এর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়।
হিলির ধরন্দা এলাকার স্থানীয়রা জানান, জুম্মার নামাজ শেষে বাড়িতে আসার সময় দেখতে পাই একটি লাশ পড়ে আছে। পরে পুলিশকে খবর দিলে লাশটি উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। তবে সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেল সে ট্রাকের নিচে মাথা ঢুকে দিয়ে আত্বহত্যা করেছে। অজ্ঞাত ব্যক্তির আনুমানিক বয়স (৫০)।

এদিকে দিনাজপুর-ঘোড়াঘাট মহাসড়কের হাইওয়ে ড্রাম ট্রাকের সাথে মুখোমুখি সংঘষে মোটরসাইকেল চালক জয় চন্দ্র (১৯) নামে এক জনের মৃত্যু হয়।

ভাদুরিয়া বাজারের স্থানীয়রা জানান, ভাদুরিয়া বাজারের পূর্ব পার্শ্বে রোডের উত্তর পার্শে চলমান রাস্তার কাজে নিয়োজিত ড্রাম ট্রাক পাথর এবং পিস মিশ্রিত কংক্রিট নিয়ে ঘোড়াঘাটের দিক থেকে আসছিল। এসময় বাম সাইড দিয়ে ভাদুরিয়া তেল পাম্পের পার্শ্বে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা ১ টি টিভিএস এ্যাপাচি মোটরসাইকেল ড্রাম ট্রাকের সামনে সজোরে ধাক্কা মারে। এতে করে মোটরসাইকেল চালক জয় চন্দ্র মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে রাস্তায় পড়লে সে গুরুত্বর আহত হন। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ঘোড়াঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক জয় চন্দ্রকে মৃত ঘোষনা করেন।
নিহত জয় চন্দ্র ঘোড়াঘাট উপজেলার কাবলিপুর গ্রামের শ্রী রতন চেচারুর ছেলে। এ ঘটনায় আহত শ্রী অনিক চন্দ্র একই এলাকার অনিল চন্দ্ররের ছেলে।

দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নবাবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ তাওহীদুল ইসলাম।
তিনি বলেন দুর্ঘটনাটি নবাবগঞ্জ থানার মধ্য হলেও জয় চন্দ্র মারা গেছে ঘোড়াঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। সেখানে খবর নিয়ে জানতে পারি যে নিহতের পরিবার হাসপাতাল থেকে লাশটি নিয়ে গেছে।

এদিকে হাকিমপুর থানার এসআই সুজা মিয়া জানান, ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে হাসপাতালে রাখা আছে। আমরা ওই এলাকার একটি সিসিটিভির ফুটেজে দেখতে পেলাম তিনি ওই স্থানে বসে ছিল। বিরামপুরের দিক হতে হিলির দিকে আসা একটি ট্রাকের সামনের চাকা পার হয়ে গেলে সে পিছনের চাকার নিচে নিজেই মাথা ঢুকে দিয়ে আত্বহত্যা করেছে। তবে এখন পর্যন্ত তার পরিচয় পাওয়া যায়নি।

এই বিভাগের আরো খবর

সর্বশেষ সংবাদ

দশ জনপ্রিয় সংবাদ